রসায়নবিজ্ঞান

রাসায়নিক বিস্ফোরণ: পদার্থের ভয়াবহ এবং মারাত্মক ক্ষতিকারক রূপ

, August 05, 2020 WAT
Last Updated 2020-08-05T16:53:58Z
Advertisement
রাসায়নিক বিক্রিয়া  রাসায়নিক বিক্রিয়ার উদাহরণ  রাসায়নিক বিক্রিয়া কিভাবে হয়  রাসায়নিক বিক্রিয়ার কৌশল  রাসায়নিক বিক্রিয়া ssc  রাসায়নিক বিক্রিয়া সমতাকরণ  রাসায়নিক পদার্থ কি  রাসায়নিক সমীকরণ
রাসায়নিক বিক্রিয়া


রাসায়নিক বিস্ফোরণ কি?

বিস্ফোরক বা বিস্ফোরক পদার্থ হচ্ছে বিস্ফোরণঘটাতে সক্ষম, এমন এক ধরনের পদার্থ। এর মধ্যে উচ্চমাত্রার শক্তি সঞ্চিত থাকে, যা বিস্ফোরণের মাধ্যমে প্রকাশ পায়। হঠাৎ করে খুবই অল্প সময়ের মাঝে রাসায়নিক বিক্রিয়ার মাধ্যমে এ বিপুল পরিমাণ শক্তি প্রকাশ পায়। যা আলো, তাপ, শব্দ, এবং চাপশক্তি আকারে প্রকাশ পায়।

বিস্ফোরক পদার্থে সঞ্চিত শক্তি হতে পারে:

রাসায়নিক শক্তি যেমন: নাইট্রোগ্লিসারিনচাপ শক্তি অর্থাৎ, উচ্চ চাপে রাখা গ্যাস যেমন: গ্যাস সিলিন্ডার বা অ্যারোসলের ক্যানপারমাণবিক শক্তি অর্থাৎ, নিউক্লীয় বিস্ফোরণ, যেমন: ইউরেনিয়াম-২৩৫ ও প্লুটোনিয়াম-২৩৯-এর ফিশনযোগ্য আইসোটপ ।
বিস্ফোরণের গতিবেগ দ্বারা বিস্ফোরক দ্রব্যের শ্রেণীবিভাগ করা যেতে পারে।

যেকল বিস্ফোরক শব্দের চেয়েও দ্রুত গতিতে বিস্ফোরিত হতে সক্ষম যেসগুলোতে উচ্চমাত্রার বিস্ফোরক বলা হয়।

এছাড়া বিস্ফোরক দ্রব্যের স্পর্ষকাতরতা দ্বারাও বিস্ফোরকে শ্রেণীবিভাগ করা হয়। এখানে নির্ণয় করা হয় কতো কম চাপে বা তাপে একটি পদার্থ বিস্ফোরিত হয়।

যেসকল বিস্ফোরক অল্প তাপ বা চাপে বিস্ফোরিত হয় তারা প্রাথমিক বিস্ফোরক বা প্রাইমারি এক্সপ্লোসিভ নামে পরিচিত।

 অপরদিকে তূলনামূলক ভাবে বেশি তাপ বা চাপে বিস্ফোরিত বিস্ফোরকগুলো সেকেন্ডারি এক্সপ্লোসিভ বা মাধ্যমিক বিস্ফোরক নামে পরিচিত।
-ইন্টারনেট হতে