খবর

মুভির ইতি কথা

, June 02, 2019 WAT
Last Updated 2019-10-26T21:25:38Z
Advertisement

ঈদের বন্ধ শুরু। আর এই বন্ধে সবার কমন কাজের একটা হলো মুভি দেখা। এখন হঠাৎ যদি প্রশ্ন করা হয় মুভির আব্বা কে? বা বিশ্বের প্রথম মুভিটাই কোনটা? বলতে পারবেন? আদৌ কি দেখেছিলেন আজকের এন্ড গেম কিংবা গটের শুরুটা কোত্থেকে হলো? তাহলে আসেন মুভির বাপ দাদাদের সাথে পরিচিত হওয়া যাক।
শুরুটা করেন জোসেপ প্লুটো নামের এক ভদ্রলোক ( যদিও তার ক্যারেক্টার সার্টিফিকেট দেখি নাই)। তিনি ১৮৩০ সালে আবিষ্কার করেন Phenakistoscope নামে চাকতি যুক্ত একটা ঘুরান্টি যন্ত্র। এর চাকতিতে আঁকা থাকতো পরস্পর সম্পর্ক যুক্ত অনেক গুলো ছবি। আর চাকতি ঘুরানো হতো, ফলে একটা চলমান চিত্রের মত দেখা যেত। তবে ছবি সংযুক্ত করে তা দ্রুত ঘুরালে সেটা চলমান চিত্রের মত দেখায় সেই আইডিয়াটা কিন্তু আরেক ভদ্রলোক এডওয়ার্ড ময়ব্রিজ এর।
এরপর আমার আপনার সবার প্রিয় টমাস এ এডিসন 1891 সালে আবিস্কার করেন আরেক যন্ত্র Kinetograph. তার মালটি দেখে আই মিন আবিষ্কার দেখে উৎসাহিত হয়ে লুমিরি ভাই ১৮৯৫ সালে সিনেমেটোগ্রাফ আবিষ্কার করে তার সাথে প্রজেক্টের জুড়ে দেন। ব্যস সেটা দর্শকদের দেখার উপযোগী হয়। এডিসনেরটা ছিলো আমাদের দেখা বায়েস্কোপের মত একটা বক্স।
এদিকে লুমিরি ব্রাদার তাদের যন্ত্রখানার প্যাটেন্ট করে ফেলেন ১৮৯৫ সালে। সো বলতে পারেন এরাই আধুনিক সিনেমেটোগ্রাফির শুরু করেন।
এতক্ষণ বললাম তাদের যন্ত্র কেমন ছিলো সেটা নিয়ে। এবার আসি যন্ত্র থেকে কী বের হয়েছিলো সেটা নিয়ে।
এডওয়ার্ড মায়ব্রিজের সেই আইডিয়া দিয়েই ১৮৭৮ সালে প্রথম বানানো হয় প্রথম চলচিত্র " দ্যা হর্স ইন মোশন " শ্রেষ্ঠাংশে ছিলেন একটা ঘোড়া চালক আর একটি ঘোড়া।
১৯৮৮ সালে Roundhay Garden scene নামের চলচিত্র পুরা বিশ্বে সাড়া ফেলে দেয়। যদিও কয়েক সেকেন্ডের মুভিখানাতে দুই মহিলা আর দুই পুরুষের কিছুক্ষণের মুভমেন্ট দেখানো হয়।মুভি খানা দেখে আবেগে আমি কেঁদেছিলাম
এটাকেই ধরে নিতে পারেন আমাদের ভাষায় প্রথম মুভি হিসাবে। তবে এটা নিয়ে দ্বিমত, ত্রিমত এবং বহুমত আছে।
এর পর লুমিরি ভাইয়ের যন্ত্রের কেরামতিতে সবাই ১৮৯৫ আরেকখান কালজয়ী সিনামা দেখতে বসেন, নাম " The Arrival of Train" মুভির ঘটনা হলো একটা ট্রেন স্টেশনে ভিড়লো, জ্বি এইটুকুই। মজার ব্যাপার হলো মুভি খানা দেখে সবাই ভয়ে রুম থেকে পালায়। কারণ সবাই ভাবছে রুমেই বুঝি ট্রেন ঢুকে গেলো ( যত্তসব ন্যাকামি )
এর এক বছর পরেই ১৮৯৬ সালে বের হয় প্রথম হরর মুভি। মুভিটি দেখার পর ভালই লেগেছে। The Davil's Castle নামে মুভিতে বাদুড় বেশে হানা দেয়া এক যাদুকর ক্যাসলে তার শয়তানি দেখায়। উইচ, ব্রুমস্টিক, গবলিন এই জিনিস গুলার যারা প্রথম সচক্ষে দেখেছিলো ভাবুনতো তাদের অনুভূতিটা কেমন ছিলো?
এদিকে USA তে ১৮৯৬ সালে প্রথম Vitoscop hall নামে থিয়েটার তৈরি করে ফেলে।
মুভি রিভিউ বলতে আমরা যা বুঝি সেটার শুরু ১৯১১ সালে। উনবিংশের শেষ আর বিংশ শতাব্দির শুরু জুড়েই হলিউড তার সৃষ্টি থেকে বিস্তৃতি লাভ করে।
শেষ করবো আপনার আমার সবার দেখা চার্লি চ্যাপলিন দিয়ে। ১৯১৪ রে শুরু করা এই সিরিজ এখনো দেখলে হাসি পায়। তখনকার যুগে যখন মুভি ইন্ডাস্ট্রিজ বিছানায় হিস্যু করতো আই মিন শিশু ছিলো তখন সেটা কতটা আকর্ষনীয় আর জনপ্রিয় ছিলো ভাবতেই অবাক লাগে।
এরপর এই মুভি ইন্ডাস্ট্রি" The horse in motion " চলচিত্রের ঘোড়ার মত দৌড়াচ্ছে তো দৌড়াচ্ছে।
তো ঈদে আপনার মুভি মিশন শুরুর আগে মাত্র ১০ মিনিট সময় নিয়ে এই ঐতিহাসিক মুভি গুলা ইউটিউব থেকে দেখে নিয়ে আপনিও ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে যেতে পারেন। আর কেউ আপনার সাথে "মুভি ফ্রিক" টাইপ ভাব দেখালে ধুমধাম কয়েকটা প্রশ্ন করে তাকে কুপোকাত করে দিতে পারেন। এটার ভাবই আলাদা
- S Hossain Bappy