খবরপরামর্শ

বাড়ীর আগুনে কি করণীয় বাংলাদেশ ?

, March 31, 2019 WAT
Last Updated 2019-10-26T21:25:38Z
Advertisement

বাড়ীর সব সদস্যদের নিয়ে পড়ুন - ও আলোচনা করুন -


আগুন লাগার আগেই

১. রান্না ঘরে একটি বালতিতে ভরে বালু রাখুন। আগুনে কাজে লাগবে।
বালু ভর্তি বালতি

২. বাড়ীতে রান্না ঘরের কাছাকাছি অন্নান্য ঘরের সংযোগ স্থলে ফায়ার অ্যালার্ম লাগান ( smoke detector)।
কে এসব ফালতু বাড়তি ঝামেলা করবে ? এক বালতি বালু , বা ১টি ফায়ার এলার্মের পেছনে খরচ করা টাকা ও সময় আপনার পরিজনের জীবনের থেকে বেশী নয়।
----------- 
ফায়ার ফাইটিং করছেন একজন দমকল কর্মী

আগুন লাগলে -

১. চিৎকার করে সবাইকে জানান দিন। বের হতে হতে চিৎকার করতে থাকুন " আগুন আগুন ". এটা ভয়ের চিৎকার না , সতর্কতার চিৎকার।
২. কোনো মূল্যবান জিনিস সংগ্রহের চেষ্টা করবেন না , তা যত মূল্যবান ই হোক না কেন। আপনি ও আপনার পরিবারের সদস্যদের জীবনই এসময় সর্বাপেক্ষা জরুরী। ১ সেকেন্ড সময়ও মূল্যবান।
৩. আমরা মারা যাচ্ছি - এমন কোনো কথা বলবেননা। চেঁচামেচি করবেননা। সাহস না হারিয়ে আল্লাহর দরবারে দোয়া করবেন। পরিস্থিতি যতটা শান্ত রাখা যায় বিপদ মুক্তির সম্ভাবনা তত বেশী।
৩. আপনার গায়ে আগুন লেগে গেলে মনে রাখবেন STOP, DROP, ROLL-
কোনো অবস্থায় দৌঁড়াবেননা , এমনকি সামনে পানির বালতি থাকলেও না। থামুন, গড়িয়ে গড়িয়ে যেদিকে যেতেচান সেদিকে যান।

৪. নাক কাপড় দিয়ে ঢাকুন , হাতের কাছে পানি থাকলে কাপড় ভিজিয়ে নিন।
৫. সিঁড়ি ঘরে গেলে যদি ধোয়া দেখতে পান তাহলে কখনো উপরে উঠবেননা। ছাদে যাবার চেষ্টা করবেননা। ধোয়া বাতাসের থেকে হালকা- তাই তা উপরের দিকে ওঠে। এবং সেটা ইনহেল করে আপনি প্রথমে বেহুশ হয়ে যাবেন তারপর অজ্ঞান অবস্থায় মারা যাবেন।
৬. যদি সিঁড়ি দিয়ে নামা বিপজ্জনক হয় তবে বারান্দা, বা জানালার কাছে চলে যাবেন ; এতে হাতে বেশী সময় পাবেন।
৭. ধোয়া আচ্ছন্ন পথ পরিহার করুন। যদি বাধ্য হন ধোয়ার মধ্যে দিয়েই যেতে তবে মনে রাখবেন - get low and go under the smoke.
রুমে বা পথে ধোয়ায় ভরে গেলে হেটে বের হবার চেষ্টা করবেননা। উপুড় হয়ে বা হামাগুড়ি দিয়ে বের হতে চেষ্টা করবেন। ধোঁয়া উপরে ওঠে বলে নীচের বাতাসে অক্সিজেন বেশী থাকে। এতে আপনি বেহুঁশ হবার আগে বেশী সময় পাবেন।
ধোঁয়ায় কিছু দেখা না গেলে ও একাধিক সদস্য থাকলে একজনের পেছনে আরেকজন হামাগুড়ি দিবেন -একে অন্যের কাপড় বা পা ধরে।
সাহসী ও বিপদে দিশেহারা হননি এমন কেউ নেতৃত্ব নিবেন - কেউ কিছুক্ষন পরে পরে সান্তনা দেবেন - "আমরা ঠিক আছি , সব ঠিক হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ" - এমনটা বলতে থাকবেন।
লিখেছেন - কানিজ ফাতেমা