জীববিজ্ঞান

মৌমাছির প্রজনন এর বিশেষত্ব (Sex peculiarity of Honeybees)

Tuesday, September 10, 2019, September 10, 2019 WAT
Last Updated 2019-10-26T21:25:32Z
Advertisement


মৌমাছির প্রজনন একটু ব্যতিক্রমী।
একটা মৌচাকে মাত্র একটাই রানী থাকে। তবে অনেকগুলো পুরুষ মৌমাছি বা Drone থাকতে পারে।
রানী মৌমাছির পূর্ণাঙ্গতা প্রাপ্ত হতে সময় লাগে ১৬ দিনের মতো। আর পুরুষ ড্রনেের লাগে ২৪ দিন। রানীটা যৌবনপ্রাপ্ত হলেই মেটিং করে। মেটিং করে শূণ্যে উড়ন্ত অবস্থায়। মেটিংয়ের পূর্বে রানী আকাশে উড়াল দেয়। পিছে পিছে পুরুষ মৌমাছিরাও উড়াল দেয়। পুরুষদের মধ্যে প্রতাতিযোগীতা হয়। তাদের মধ্যে একজন রানীর সঙ্গে মিলিত হতে পারে। মিলিত হবার পর পুরষের পুরুষাঙ্গ (Endophallus) আর বের হয় না। তখন পুরুষটা তার পুরুষাঙ্গটার আশা ছেড়ে দিয়ে নিজেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলে। তখন পুরুষটার তলপেটের অংশসহ পুরষাঙ্গটা রানীর দেহে আটকে থাকে। পুরুষটা বিচ্ছিন্ন হবার পরপরই মারা যায় ও মাটিতে নিপতিত হয়।


এরপর একই উড়ালে অন্য পুরুষও সুযোগ নিতে চায়। সেক্ষেত্রে ঐ পুরুষটাকে পূর্বের পুরুষটার আটকে থাকা যৌনাঙ্গ বা Endophallus টা সেখান থেকে তাকেই বের করতে হয়। তারপর নতুন পুরুষটা মিলিত হতে পারে। মিলিত হবার পর একই রকমের ঘটনা ঘটে। এরপর আবার অন্য কোন ড্রোন যদি মিলিত হতে চায় তবে পূর্বেরটার মতো কাজ করতে হয় এবং তারও অনুরূপ পরিনতি ঘটে। এভাবে প্রায় হাফ ডজন বা তার বেশী ড্রোন রানীর সাথে একই উড়ালে মিলিত হতে পারে।
এভাবে যে পুরুষ মৌমীছি রানীর সাথে মিলিত হবে তারই প্রাণ যাবে। তাই এই মিলিত হওয়াকে বলা হয় Suicide Mating.

একটা ফ্লাইটে যতবার মিলিত হোক, সব মিলে প্রায় ১০ কোটি পর্যন্ত স্পার্ম (Sperm) রানির Oviduct এ জমা হতে পারে। আর রানী সারা জীবনভর এই স্পার্ম ব্যবহার করে ডিম দিতে পারবে। তার আর কখনও কোন পুরুষ মৌমাছির সাথে মিলিত হবার দরকার হয় না। শুধু কি তাই? তার পেট থেকে জন্মা স্ত্রী সন্তানদেরও পুরুষ মৌ মাছির সাথে মিলিত না হলেও চলবে এবং ডিম ও বাচ্চা দিতে সক্ষম হবে। এটাও একটা বিশেষত্ব।

রানীর কোন কাজ নেই। চারপাশে শত শত কর্মী ঘুরঘুর করে তার সেবা করার জন্য। তাকে খাওয়ায়, মুখ মুছে দেয়, তার গা পরিষ্কার করে দেয়। আর রানী শুধু বসে বসে ডিম পাড়ে। একদিনে রানী সর্বোচ্চ ২০০০ ডিম পাড়তে সক্ষম। তাই মৌমাছির রানীকে বলা হয় Egg Laying Machine.
তবে বয়স বেশী হলে এবং পরিবেশ অনুকুল না থাকলে ডিম পাড়ার পরিমান কমে যায়। রানী ২ থেক ৩ বছর পর্যন্ত বাঁচে।

এখন প্রশ্ন হলো যখন বানিজ্যিকভাবে মৌমাছি পালন করা হয়, তখন তো আবদ্ধ অবস্থায় থাকে। তখন কি এভাবে Mating Flight করতে পারে? না পারলে ডিম কিভাবে দেবে?

সাধারণতঃ মিলিত হবার পরই রানীকে arrest করা হয় ও বাক্স বন্দি করা হয়। আর জীবনে একবার মেটিং করলে তার আর বাঁকী জীবনে পুরষ মৌমাছির সাথে মিলিত হবার দরকার নেই।

উপরন্ত মৌমাছির অন্য একটি বিশেষ বৈশিষ্ট হলো যে, আদৌ যদি কোন পুরুষের সাথে রানী মিলিত না হয়, তবু রানী মৌমাছি ডিম ও বাচ্চা দিতে সক্ষম।
আর যদি ছোট্ট অবস্থাতে রানীকে Arrest করা হয় এবং বাক্স বন্দি করা হয়, এবং মিলিত হবার সুযোগ না পায় তাতেও বংশ বিস্তারে কোন সমস্যা হয় না। হয়তো রানীর কপালে মেটিং ফ্লাইট নাও জুটতে পারে। তবে বাক্স বন্দি থাকলেও তাদের বের হতে বাধা নেই। রানী মৌমাছিটি Elopement করতে পারে যেমন মানুষের বেলায় অহরহ ঘটে, ঠিক তেমনি, রানীও ফুরুৎ করে বাক্স থেকে বেরিয়ে মেটিং ফ্লাইট করতে পারে।

খুব বিচিত্র মৌমাছির Sex.

TrendingMore