সাইন্স ফিকশন মুভিসাইন্স-ফিকশন

The MatriX (Criticism)

Saturday, July 20, 2019, July 20, 2019 WAT
Last Updated 2019-10-26T21:25:32Z
Advertisement
একজন কম্পিউটার হ্যাকার তার বাস্তবতার আসল প্রকৃতি এবং কন্ট্রোলারদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে তার ভূমিকা সম্পর্কে রহস্যময় বিদ্রোহীদের কাছ থেকে জানতে পারে
মুভি পোস্টার
খুঁটিনাটি- পরিচালক - ওয়াচোস্কিস সিস্টার্স প্রযোজক - জোয়েল সিলভার গল্প ও চিত্রনাট্য - ওয়াচোস্কিস সিস্টার্স ধরণ - সাইন্স ফিকশন, একশান অভিনয়ে - কিনো রিভস, লরেন্স ফিশবার্ন, ক্যারি এন মস, হুগো ওয়েভিং মিউজিক - ডন ড্যাভিস সিনেমাটোগ্রাফি - বিল পোপ সম্পাদনা - জ্যাক স্ট্যানবার্গ প্রোডাকশন কোম্পানি - ওয়ার্নার ব্রাদার্স পিকচার্স, ভিলেজ রোডশো পিকচার্স পরিবেশনায় - ওয়ার্নার ব্রাদার্স পিকচার্স
সিনেমা দৃশ্য
মুক্তি - ৩১ মার্চ, ১৯৯৯ (যুক্তরাষ্ট্র) ৮ এপ্রিল, ১৯৯৯ (অস্ট্রেলিয়া) রানিং টাইম - ১৩৬ মিনিট দেশ - যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া ভাষা - ইংরেজি বাজেট - $৬৩ মিলিয়ন বক্স অফিস - $৪৬৩ মিলিয়ন
ভাল দিক- মুভিটির একশান সিকুয়েন্স ছিল অনেক উন্নত মানের যা তখন যুগান্তকারী উদাহরণ সৃষ্টি করেছিল। এর স্লো মোশান প্রযুক্তিগুলো এখনো অনেক জনপ্রিয়। তাছাড়া মুভিটির সাইবারপাঙ্ক সাবজনার নিয়ে ভিন্নধর্মী গল্পের উপস্থাপন প্রশংসার দাবীদার ।
সিনেমা দৃশ্য

খারাপ দিক-
কিছু অপ্রয়োজনীয় অশ্লীল দৃশ্যের জন্য বিরক্তি লেগেছে....

কাহিনী সারসংক্ষেপ- ১৯৯৯ সালের কথা, এন্ডারসন ওরফে নিও নামে এক ব্যক্তি খুব সাধারণ জীবন যাপন করে। সে একইসাথে একজন সফটওয়্যার বিশেষজ্ঞ এবং টুকটাক কম্পিউটার হ্যাকিং এর কাজও করে। এই হ্যাকিং এর কাজ দ্বারা হঠাৎ সে একরাতে মরফিয়াস নামে একজনের সাথে পরিচিত হয়, যার কাছে এন্ডারসনকে দেয়ার মত অনেক আকর্ষণীয় তথ্য রয়েছে। সে এন্ডারসনকে বলে যে তার আশেপাশে যা কিছু ঘটছে তা কোনোকিছুই বাস্তব নয়।
সিনেমা দৃশ্য
আসলে এই সময়টি হচ্ছে ২১৯৯ সালের এর কাছাকাছি। এবং মনে হচ্ছে বেশিরভাগ মানুষের মত এন্ডারসনও ম্যাট্রিক্স এর শিকার। ম্যাট্রিক্স হচ্ছে একটি শক্তিশালী কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা পদ্ধতি যা মানুষের মস্তিষ্কে চেপে বসে এবং বাস্তব জগতের বিভ্রম সৃষ্টি করে। এটি শক্তির জন্য মানুষের মস্তিষ্ক এবং শরীর ব্যবহার করে। ব্যবহার শেষ হয়ে গেলে তারা মানুষকে তুচ্ছ জিনিসের মত নিক্ষেপ করে। যাইহোক মরফিয়াস কোনোভাবে নিওকে মানিয়ে নিয়েছে যে সেই একমাত্র ব্যাক্তি যে ম্যাট্রিক্স এ ফাটল ধরাতে পারবে এবং মানুষগুলোকে শারীরিক ও মানসিকভাবে স্বাধীন করে ফিরিয়ে আনতে পারবে। এরপর কি হবে? জানতে হলে আপনাকে অবশ্যই দেখতে হবে মাস্টারপিস এই মুভিটি...
d
লেখক - আতিক আলম

TrendingMore