সাইন্স ফিকশন মুভিসাইন্স-ফিকশন

The Flu: ভয়ঙ্কর ভাইরাস ও ৩৬ ঘন্টা বেঁচে থাকার গল্প!

, April 04, 2020 WAT
Last Updated 2020-09-19T00:07:42Z
Advertisement

দক্ষিণ কোরিয়ার একটি শহরে চরম বিশৃঙ্খলা এবং মানুষের জীবনে চরম বিপর্যয় শুরু হয় যখন একটি প্রাণঘাতী বায়ুবাহিত ভাইরাস শহরের মানুষের মধ্যে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে


Flu movie স্প্যানিশ ফ্লু ইনফ্লুয়েঞ্জার লক্ষণ The flu Movie Download স্প্যানিশ ফ্লু উইকিপিডিয়া ইনফ্লুয়েঞ্জা ভ্যাকসিন The flu Full Movie Influenza
The Flu movie



খুঁটিনাটি

পরিচালক - কিম সাং সু
প্রযোজক - কিম সাং সু, সিও জং হ্যায় 
গল্প - জাং জ্যায় হো
চিত্রনাট্য - লি ইয়ং জং, কিম সাং সু
ধরণ - সাইন্স ফিকশন, মেডিক্যাল থ্রিলার 
অভিনয়ে - সু অ্যায়, জাং হিউক 
মিউজিক - কিম ট্যায় সিওং 
সিনেমাটোগ্রাফি - লি মো গ্যায়
সম্পাদনা - নাম না ইয়ং 
প্রোডাকশন কোম্পানি - আইলাভ সিনেমা, আইফিল্ম কর্প 
পরিবেশনায় - সি জে এন্টারটেইনমেন্ট 
মুক্তি - ১৪ অগাস্ট, ২০১৩
রানিং টাইম - ১২১ মিনিট 
দেশ - দক্ষিণ কোরিয়া 
ভাষা - কোরিয়ান 
বক্স অফিস - $১৯.৮ মিলিয়ন

ভাল দিক

চিত্রনাট্যে খুব সুন্দর করে ইমোশনাল এবং লোমহর্ষক দৃশ্যগুলো ফুটিয়ে তোলা হয়েছে যা আপনাকে শেষ পর্যন্ত আটকে রাখবে ।


খারাপ দিক

অনেকেই এ মুভির কিছু কিছু জায়গায় সাথে হলিউড মুভি কন্টেজিওন এর সাথে সাদৃশ্য খুঁজে পাবেন যা হয়তো ভাল নাও লাগতে পারে ।


কাহিনী সারসংক্ষেপ

এই মুভির কাহিনী শুরু হয় দক্ষিণ কোরিয়ার সেওল শহরে। শহরের কাছে এক জায়গায় পুলিশ একটি কন্টেইনার খুঁজে পায় যেখানে থাকে মৃত অবৈধ প্রবাসীদের লাশ। তাদের মধ্যে একজন কোনোভাবে বেঁচে ফিরতে সক্ষম হয় কিন্তু সে ছিল একটি ভয়ঙ্কর ভাইরাস দ্বারা সংক্রমিত এবং এজন্য সে আর মাত্র কয়েক ঘন্টা বাঁচতে পারবে।

ভাইরাসটি হচ্ছে H5N1, যেটি দ্বারা আক্রান্ত হলে ভিক্টিম ৩৬ ঘণ্টার বেশি বাঁচতে পারেনা। মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাসটি শহরটিতে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। পুরো শহর দ্রুত বিপর্যয়ের মধ্যে পড়ে যায়। হাসপাতাল সবগুলোতে প্রচুর ভিড় জমে যায় এবং আক্রান্ত রোগীগুলো দুর্বিষহ অবস্থায় মরতে থাকে। সেওল শহর থেকে ১৯ কিলোমিটার পর্যন্ত যার জনসংখ্যা প্রায় হাফ মিলিয়নের মতো, সরকারি নির্দেশে তা সব লক ডাউন করে দেওয়া হয়। শহরের সব বিশেষজ্ঞরা এর প্রতিষেধক নির্ণয়ে মরিয়া হয়ে উঠে। এরপর কি হবে? জানতে হলে দেখতে পারেন এই মুভিটি...

ক্রিটিসাইজড বাই - আতিক আলম