চিকিৎসাবিজ্ঞানবিষয়ভিত্তিকমনীষী

‘লরিয়েল-ইউনেস্কো’ পুরস্কার পেলেন বিজ্ঞানী ফেরদৌসী কাদরি

, February 19, 2020 WAT
Last Updated 2020-07-27T00:50:11Z
Advertisement

উন্নয়নশীল দেশে শিশুদের সংক্রামক রোগ চিহ্নিতকরণ ও বিশ্বব্যাপী এর বিস্তার রোধে প্রাথমিক চিকিৎসা কার্যক্রম এবং টিকাদান কর্মসূচি জোরদারে উল্লেখযোগ্য অবদানের জন্য ‘লরিয়েল-ইউনেস্কো উইমেন ইন সায়েন্স অ্যাওয়ার্ড’ (এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চল) পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন বাংলাদেশের চিকিৎসাবিজ্ঞানী ড. ফেরদৌসী কাদরি।
চলতি বছরের ১২ মার্চ প্যারিসে ইউনেস্কোর সদরদপ্তরে এক অনুষ্ঠাতে তাকে এই পুরস্কারের ১ লাখ ইউরো তুলে দেওয়া হবে।
এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ‘ইন্টারন্যাশনাল ডে অব উইমেন অ্যান্ড গার্লস ইন সায়েন্স’ দিবস উপলক্ষে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশের (আইসিডিডিআর, বি) মিউকোসাল ইমিউনোলজি এবং ভ্যাকসিনোলজি ইউনিটের প্রধান ড. ফেরদৗসীকে এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের সেরা বিজ্ঞানী নির্বাচিত করা হয়েছে।
এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের বাইরে আরও চার বিজ্ঞানী এই পুরস্কার পেয়েছেন। তারা হলেন- আমেরিকান ইউনিভার্সিটি অব বৈরুতের অধ্যাপক আবলা মেহিও সিবাই, কলেজ ডি ফ্রান্সের অধ্যাপক এডিথ হেয়ার্ড, মেক্সিকোর জাতীয় স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনোমিক সায়েন্স সেন্টারের অধ্যাপক এসপেরেঞ্জা মার্টিনেজ-রোমেরো এবং কলোরাডো বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ক্রিস্টি আনসেথ।
বিশ্বের ১৫ জন তরুণ নারী বিজ্ঞানীর মধ্যে তারা অন্যতম বলে জানানো হয়েছে।

নারীদের জন্য বিজ্ঞান কর্মসূচির আওতায় বিশ্বের পাঁচ অঞ্চলের পাঁচ জন বিশিষ্ট নারী গবেষককে ১৯৯৮ সাল থেকে এই সম্মাননা দেওয়া হচ্ছে। এখন পর্যন্ত ১১২ জন নারী এই পুরস্কার পেয়েছেন।

এর পাশাপাশি চিকিৎসক ও গবেষকসহ বিশ্বের ১১৮টি দেশের ৩ হাজার ৩০০ তরুণ নারী বিজ্ঞানীকে প্রতিনিয়ত সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।