পদার্থবিজ্ঞানবিজ্ঞানীবিষয়ভিত্তিক

লিসা মাইটার (২য়-পর্ব)

, May 27, 2019 WAT
Last Updated 2020-07-27T00:51:09Z
Advertisement



লিসা মাইটার (১ম পর্বের পর) ...
তিরিশ বছরেরও বেশি অটো এবং লিসা একজোট হয়ে কাজ করেছিলেন। দু’জনের মধ্যে তৈরি হয়েছিল এক প্রগাঢ় বন্ধুত্বের সম্পর্ক। কিন্তু দু’জনের চরিত্র ছিল সম্পূর্ণ ভিন্ন প্রকৃতির। লিসা অতিমাত্রায় লাজুক আর অটো ছিলেন অতি সপ্রতিভ। তাঁরা একসাথে কাজ করেছেন ঠিকই, কিন্তু তাঁদের দুজনের জন্য পরিস্থিতিটা মোটেই এক ছিল না।কারণ সে ছিল এক প্রকট লিঙ্গ বৈষম্যের সময়। গোড়ার বা শুরুর কয়েকটা বছর লিসা তো তাঁর পারিশ্রমিকই পেতেন না, পরে যাও বা পেতেন তা ছিল অটো হানের পারিশ্রমিকের তুলনায় নিতান্তই সামান্য। তবে তাঁদের যৌথ প্রয়াস বিজ্ঞানের জগতে এনে দেয় দারুন কিছু সাফল্য , যেমন – ১৯১৮-সালে প্রোট্যাক্টিনিয়াম নামে নতুন মৌলের আবিষ্কার। তবে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য অবদান হলো ১৯৩৮ সালে নিউক্লিয়ার ফিশন-এর আবিষ্কার।
"লিসা হলেন আমাদের জার্মানির মেরি কুরি "
---- অ্যালবার্ট আইনস্টাইন
১৯৩৩ সাল নাগাদ বার্লিনে বসবাসকালে ইহুদী জন্মপরিচয়ের কারণে লিসাকে বহু সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। তখন তিনি বার্লিনের কায়সার উইলহেম ইনস্টিটিউট ফর কেমিস্ট্রী-র পরিচালিকা এবং একই সাথে বার্লিন বিশ্ববিদ্যা‍লয়ের পদার্থবিদ্যা বিভাগের পূর্ণ দায়িত্বপ্রাপ্ত একজন অধ্যাপিকা । সেই বছরেই, শিক্ষাজগতের সাথে জড়িত সমস্ত ইহুদীদের আইন মোতাবেক বাধ্য করা হয়েছিল তাদের পদ ছেড়ে দিতে।
স্বাভাবিকভাবেই লিসার গায়েও তার আঁচ লাগে। আইনস্টাইন, ম্যাক্স বর্নের (Max Born) মতো বিজ্ঞানীরা দেশত্যাগ করলেও লিসা দেশে থেকেই তাঁর গবেষণা চালিয়ে যাওয়ার দুঃসাহসিক সিদ্ধান্ত নেন। যদিও পরবর্তীকালে এই সিদ্ধান্তের জন্য তাঁকে অনুতপ্ত হতে হয়েছিল। ১৯৪৬ সালে তিনি বলেন, “সেই মুহূর্তে দেশত্যাগ না করার সিদ্ধান্তটা শুধু বোকামিই ছিল না, ছিল একটা বড় ভুল”। অবশেষে ১৯৩৮ সালে নিজের ভয়ঙ্কর ক্ষতির শাসানি তাঁকে বাধ্য করে দেশ ছাড়তে।ফলে নিজের পরবর্তী বাসস্থান হিসেবে তিনি বেছে নেন স্টকহোমকে। কিছু ডাচ সহকর্মী বিজ্ঞানীদের সহায়তায়,শূন্য হাতে, ভয়ানক ভীত সন্ত্রস্ত অবস্থায় লিসা জার্মানী ছেড়ে চলে যান। স্টকহোমে অত্যন্ত উদাসীন আপ্যায়নে তিনি ভীষণরকমের অপ্রস্তুত হয়েছিলেন। সৌভাগ্যবশতঃ এই সময় কর্মসূত্রে বিজ্ঞানী নীলস বোরের সাথে তাঁর পরিচয় হয়, বোর-এর তখন কোপেনহাগেন থেকে সুইডেন নিয়মিত যাতায়াত ছিল।

লেখক - নাজমুল হাসান , বিজ্ঞানবিডি.কম এর জীবনি সেকশনের লেখক ।