সাইন্স ফিকশন মুভিসাইন্স-ফিকশন

WALL-E (Criticism)

, April 06, 2019 WAT
Last Updated 2019-10-26T21:25:38Z
Advertisement
সুদূর ভবিষ্যতে একটি ছোট আবর্জনা সংগ্রাহক রোবট অসাবধানতা বশত একটি মহাকাশ যাত্রায় নিযুক্ত হয়ে যায় যা হয়তো চূড়ান্তভাবে মানবজাতির ভাগ্য নির্ধারণ করবে

WALL-E মুভি পোস্টার

খুঁটিনাটি-

পরিচালক - এন্ড্রু স্ট্যানটোন প্রযোজক - জিম মরিস গল্প - এন্ড্রু স্ট্যানটোন, পিট ডক্টার চিত্রনাট্য - এন্ড্রু স্ট্যানটোন, জিম রিয়ারডন ধরণ - সাইন্স ফিকশন, কম্পিউটার এনিমেটেড অভিনয়ে - বেন বার্ট, এলিসা নাইট, জেফ গার্লিন, ফ্রেড উইলার্ড মিউজিক - থমাস নিউমেন সিনেমাটোগ্রাফি - ড্যানিয়েল ফেইনবার্গ সম্পাদনা - স্টিফেন স্কেফার প্রোডাকশন কোম্পানি - ওয়াল্ট ডিজনি পিকচার্স, পিক্সার এনিমেশন স্টুডিও পরিবেশনায় - ওয়াল্ট ডিজনি স্টুডিও মোশান পিকচার্স মুক্তি - ২৭ জুন, ২০০৮ রানিং টাইম - ৯৭ মিনিট দেশ - যুক্তরাষ্ট্র ভাষা - ইংরেজি বাজেট - $১৮০ মিলিয়ন
বক্স অফিস - $৫৩৩ মিলিয়ন

ভাল দিক-

এনিমেশন ফিল্ম শুধু যে বাচ্চাদের জন্য নয় এই মুভিটি তার প্রমাণ। এই মুভিতে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, ভোগবাদ, কর্পোরেটিজম, স্বরণবেদনা, স্থূলতা, পরিবেশের উপর মানুষের প্রভাব ও উদ্বেগ, বিশ্বব্যাপী সর্বনাশা ঝুঁকি এসব বিষয় নিয়ে তীব্র সমালোচনা করা হয়েছে। এটি সত্যিই প্রশংসার দাবীদার ...
খারাপ দিক- মুভিটি দেখতে দেখতে আপনি এতটা মজে যাবেন যে এর রানিং টাইম কম হওয়াতে আপনার আফসোস লাগতেই পারে...
কাহিনী সারসংক্ষেপ-
সুদূর ভবিষ্যতে মানুষ অত্যধিক আবর্জনার কারণে পৃথিবী পরিত্যাগ করে। ওয়াল-ই নামক একটি ছোট রোবট তখনও সেখানে একা বাস করতে থাকে একটি পোষা তেলাপোকা নিয়ে। তার কাছে যেসব জিনিস আকর্ষণীয় লাগতো সে তা কুড়িয়ে নিত। এভাবে তার বিভিন্ন জিনিস সংগ্রহ হয়ে যায়। তার কাছে এমন কি সর্বশেষ জীবন্ত উদ্ভিদটিও আছে। যখন একটি মহাকাশযান পৃথিবীতে আসে এবং ইভিই নামক একটি মসৃণ ও বিপজ্জনক ক্ষতপরীক্ষার অস্ত্র নামিয়ে দেয় জীবন্ত উদ্ভিদ খোঁজার জন্য। তার সাথে ওয়াল-ই প্রেমে পড়ে যায়। ওয়াল-ই তাকে সেই উদ্ভিদটি দেয়। যখন মহাকাশযানটি ইভিই কে ফিরিয়ে নিতে আবার আসে তখন ওয়াল-ই ও তার সাথে যায়। সে এক্সিওম নামক একটি ছায়াপথে চলে যায়। সেখানে সে দেখে মানুষ বাতাসে ঝুলন্ত চেয়ারে চলাফেরা করছে এবং স্ট্র ব্যবহার করে তরল খাবার খাচ্ছে। এই অলসতার কারণে তারা এত মোটা হয়েছে যে তারা নড়াচড়া পর্যন্ত করতে পারেনা। একটি অটো পাইলট কম্পিউটার এর জন্য দায়ী কারণ এটি পৃথিবীর মানুষগুলোকে পৃথিবীতে ফিরে যেতে বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করে। ওয়াল-ই, ইভিই এবং কিছু ভাঙা রোবটের দল এর বিরুদ্ধতা করে। কিন্তু কেন? জানতে হলে আপনাকে অবশ্যই দেখতে হবে মাস্টারপিস এই মুভিটি...

লিখেছেন - আতিক আলম
                                                       লেখক এবং সাইন্স ফিকশন মুভি সমালোচক