খবর

বাংলায় কথা বলা রোবর্ট 'লি'

, April 25, 2019 WAT
Last Updated 2019-10-26T21:25:38Z
Advertisement
প্রথম বাংলা বলা রোবট 'লি'- শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের যুগান্তকারী আবিষ্কার

গত ২০ এপ্রিল শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো "সাস্ট টেকফেস্ট"। 
যেখানে শিক্ষার্থীরা তাদের নতুন নতুন উদ্ভাবন সমূহ উপস্থিত অতিথিদের প্রদর্শন করেন।
এই অনুষ্ঠানেই হাঁটতে সক্ষম রোবট তৈরি করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন শাবির শিক্ষার্থীরা। ‘লি’ নামের ওই রোবটটি কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তায় বাংলায় কথাবার্তা বলা ছাড়াও হাটঁতে পারে যা বাংলাদেশে প্রথম বলে দাবি করছেন শিক্ষার্থীরা। রোবটটি তৈরিতে ব্যয় হয়েছে মাত্র ১০ লাখ টাকা। বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ফ্রাইডে ল্যাব’ এর পাঁচ শিক্ষার্থী ওই রোবটটি তৈরি করেছেন। গত শনিবার বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক রোবটটির উদ্বোধন করেন। সোমবার রোবটটি জনসম্মুখে আনেন উদ্ভাবকরা।
এদিকে আইসিটি বিভাগ রোবটটির জন্য দশলাখ টাকা দিলেও তা খুবই অপ্রতুল বলে দাবি করেছেন উদ্ভাবকরা। পর্যাপ্ত অর্থ সহায়তা পেলে রোবটটি আরো উন্নত করা সম্ভব বলে জানিয়েছেন উদ্ভাবকরা। ‘ফ্রাইডে ল্যাব’ এর টিম লিডার হিসেবে রয়েছেন নওশাদ সজীব। তিনি এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ে আবিষ্কৃত ‘স্যোশাল রোবট’ রিবো এর টিম লিডার ছিলেন।
জানা যায়, ‘লি’ রোবট তৈরিতে দলটির মোট সদস্য পাচঁজন। টিম লিডার হিসেবে রয়েছেন নর্থ ইষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের লেকচারার ও শাবির সিএসই বিভাগের ২০০৯-১০ সেশনের শিক্ষার্থী নওশাদ সজীব। এছাড়া টিমের অন্য সদস্যরা হলেন স্থাপত্য বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান রূপক, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের একই বর্ষের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের মোহাম্মদ সামিউল ইসলাম ও জিনিয়া সুলতানা জ্যোতি। এর মধ্যে মূল অংশ প্রোগ্রামিংয়ে কাজ করেছেন নওশাদ সজীব। ডিজাইনে মেহেদী হাসান, রোবটের ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল সিস্টেমে সাইফুল ইসলাম, ডেভেলপিংয়ে মোহাম্মদ সামিউল ইসলাম ও কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা সংযুক্ত করেছেন জ্যোতি।